গ্রীষ্মকাল, বৃহস্পতিবার, ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,১লা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি, সন্ধ্যা ৬:০০
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সংবাদযোদ্ধার মোবাইল কেড়ে নেয়ায় অনলাইন প্রেস ইউনিটির নিন্দা

admin

স্টাফ রিপোর্টার

স্তায় চলাচলরত গাড়ি এবং লকডাউনের সার্বিক পরিস্থিতি মোবাইলে ভিডিও করার দায়ে ঢাকা পোস্টের প্রতিবেদকের মোবাইল কেড়ে নিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিরপুর জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার আ. স. ম. মাহতাব উদ্দিন।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) বেলা ১১ টায় মিরপুর-১ নাম্বর ফুটওভার ব্রিজের নিচ থেকে এই প্রতিবেদকের মোবাইল কেড়ে নেন মিরপুর জোনের ডিসি।মিরপুর ১ নাম্বার থেকে ভিডিও ও ছবি তোলার জন্য ঢাকা পোস্টের সিনিয়র রিপোর্টার সাইদ রিপনের মোবাইল নিয়ে গেছেন মিরপুর জোনের ডিসি। বলেছেন প্রেস ক্লাবের নিবন্ধনের কাগজ দেখিয়ে মোবাইল ফেরত নিতে।

মোবাইলে ভিডিও ধারণের সময় পুলিশের কাছাকাছি গেলে হঠাৎ ডিসি এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘এই আপনি কে? এমন প্রশ্নের জবাবে গলায় ঝুলানো অফিসের আইডি কার্ড দেখালে, তিনি কার্ড ধরে বলেন, কিসের ঢাকা পোস্টের সাংবাদিক। এই কথা বলার পরই মোবাইল কেড়ে নিয়ে প্রতিবেদকের মোবাইলেই ডিসি নিজেই ভিডিও ধারণ করতে থাকেন। ডিসি ভিডিও করার সময় এই প্রতিবেদককে বলেন, আপনি কিসের সাংবাদিক, কিসের ভিডিও করছেন বলেন। ঢাকা পোস্টের কি প্রেসক্লাবের নিবন্ধন আছে? প্রতিবেদককে কোন কিছু বলার সুযোগ না দিয়েই পুলিশের এই কর্মকর্তা নিজের গাড়িতে উঠে যান। গাড়িতে উঠে বলেন, প্রেসক্লাবে নিবন্ধনের কাগজ দেখিয়ে আমার অফিস থেকে মোবাইল নিয়ে যাবেন।’
এই ঘটনার পর ডিসির সাথে ঢাকা পোস্ট থেকে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আপনাদের এই প্রতিবেদক আমার সাথে খারাপ আচরণ করেছে। কিন্তু মোবাইল দেওয়ার বিষয়ে তিনি অসম্মতি জানান। পরবর্তীতে ডিএমপি কমিশনার ও পুলিশ হেডকোয়ার্টার এর হস্তক্ষেপে ডিসি মোবাইল দিতে বাধ্য হোন।
মোবাইল আনতে ডিসির অফিসে গেলে তিনি জানান, এই প্রতিবেদকের সাথে সেভাবে কথা বলার সুযোগ হয়নি। তাই খারাপ আচরণ করার সুযোগ ছিল না। তাহলে কেন মোবাইল নিলেন এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, সরকারি দায়িত্ব পালনে এই সাংবাদিক বাধা দিয়েছেন। উনি আমাদের কাছাকাছি গিয়ে ভিডিও করেছে।
এ প্রসঙ্গে ডিএমপি কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘ডিএমপির মিরপুর জোনের ডিসি একজন সিনিয়র কর্মকর্তা। তিনি এটা কেন করলেন বুঝতে পারছি না। তাছাড়া সাংবাদিকদের আটকে রাখা বা মোবাইল নেওয়ার কোন নির্দেশনা ডিএমপি বা সরকার দেয়নি।’

এ ঘটনায় অনলাইন প্রেস ইউনিটি তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে। ইউনিটির প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদী বলেছেন, একজন প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে অবশ্যই  সংবাদযোদ্ধাদেরকে সম্মান করে কথা বলতে হবে। যেহেতু তিনি নূন্যতম সম্মান প্রদর্শন করেননি, তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। যাতে করে অন্য কোন প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারি সংবাদযোদ্ধাদের সাথে হেন আচরণ করতে সাহস না পায়।

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।