গ্রীষ্মকাল, মঙ্গলবার, ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,২৯শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি, বিকাল ৫:২৪
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

উৎপাদন বেশি তাই লোডশেডিং বেশি…

admin

মাহামুদ হাসান তাহের, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

গরমের সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েই চলছে লোডশেডিং। প্রচ- তাপদাহ আর আচমকা লোডশেডিংয়ে পুড়ছে রাজধানীসহ সারাদেশ। এই অস্বস্তিকর// গরম থেকে আপাতত রেহাই নেই, এমনটাই জানাচ্ছে আবহাওয়া অধিদফতর। তেমনি আগামী দুই একদিনের মধ্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হওয়ারও কোনো লক্ষণ নেই।
দিনের গরমের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে লোডশেডিং। দুঃসহ গরমে মানুষের হাঁসফাঁস অবস্থা। রাজধানীর তুলনায় জেলা শহরগুলোতে বিদ্যুতের অবস্থা আরো নাজুক। তবে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ দাবি করেছেন আগামী ৪-৫ দিনের মধ্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে।
তার মতে, টাওয়ার ভেঙে যাওয়া, ১০টি পাওয়ার প্ল্যান্ট রক্ষণাবেক্ষণে থাকা ও গ্যাসের স্বল্পতার কারণে চাহিদামতো বিদ্যুৎ দেয়া যাচ্ছে না। তবে তিনি দেশের চলমান অস্থিতিশীল বিদ্যুৎ পরিস্থিতি আগামী ৪-৫ দিনের মধ্যেই স্বাভাবিক হয়ে আসবে বলে জানান। তিনি তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বলেন, দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ও উত্তরাঞ্চলে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে ৪শ কেভি সঞ্চালনসম্পন্ন আশুগঞ্জ-সিরাজগঞ্জ টাওয়ার বিকল হয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহে বিঘ্ন ঘটায় এই অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ টাওয়ারটি মেরামত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন, যা বিদেশি টেকনেশিয়ানদের দিয়ে কাজ করাতে ৬-৭ মাস সময় লাগতে পারে।
তিনি বলেন, সরকার প্রায় ৩৫০টি নদী ব্যবহার করে বিদ্যুৎ সরবরাহ করছে। তাই যে কোনো সময় প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘটতে পারে।
এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি রমজানে বিদ্যুতের কোনো সমস্যা থাকবে না বলে সকল গ্রাহককে আশ্বস্ত করে বলেন, আমরা পবিত্র রমজানে অনেক ভালো অবস্থানে থাকবো।

তিনি বলেন, ক্রমশ বড় আকারের বিদ্যুৎ প্ল্যান্ট চালু করা হবে। ‘নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য আমরা আরও ৩ বছর সময় চাই’ উল্লেখ করে নসরুল বলেন, বর্তমানে ১ হাজার ৮৬৬ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ৮টি প্লান্ট তৈরির কাজ চলছে এবং তার মধ্যে কয়েকটি বিদ্যুৎ প্লান্ট আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে উৎপাদনে যাবে।

তিনি বলেন, দেশে বিদ্যুৎ সরবরাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রায় দুই লাখ ৫০ হাজার ট্রান্সমিটার পরিবর্তনের জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

গতকাল সোমাবার এক সভায় সংরক্ষণ ও রক্ষণাবেক্ষণে থাকা বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো পর্যবেক্ষণ করার জন্য যুগ্ম সচিব শেখ ফয়েজুল আমীন এবং এলএনডিসি বিতরণ সংস্থাগুলোকে কিভাবে, কী পরিমাণ বিদ্যুৎ দিচ্ছে তা পর্যবেক্ষণ করার জন্য যুগ্ম সচিব এ কে এম হুমায়ুন কবীরকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

এতে বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিনসহ উৎপাদন, সঞ্চালন ও বিতরণ সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গ্রাহক ভোগান্তি কমাতে পাওয়ার সিস্টেম মাস্টার প্ল্যানের আওতায় একশন প্ল্যান নির্ধাণের ওপর গুরুত্বারোপ করে নসরুল হামিদ বলেন, প্রতিটি বিতরণ সংস্থার ডিমান্ড (চাহিদা) অনুযায়ী বিদ্যুৎ উৎপাদন করা প্রয়োজন। লোডশেডিং করতে হলে আগেই গ্রাহকদের জানাতে হবে।

এসময় বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী উন্নত ডিমান্ড ম্যানেজমেন্ট নিশ্চিত করতে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে গ্রাহকদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করতে বিতরণ সংস্থাগুলোকে আহ্বান জানান।

উৎপাদন, সঞ্চালন ও বিতরণের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করা উচিত বলেও জানান তিনি।

রোজার সময় সার্বিক পরিস্থিতি উন্নত করতে সবাইকে সমন্বিতভাবে কাজ করার নির্দেশ দেন প্রতিমন্ত্রী। এসময় মন্ত্রণালয় থেকে এসব কাজ পর্যবেক্ষণ করার নির্দেশনা দেন তিনি।

২৩-০৫-২০১৭-০০-১০-২৩/

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।