গ্রীষ্মকাল, মঙ্গলবার, ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,২৯শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৩:৫৩
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

আসছে বৈশাখ, ব্যস্ত মৃৎশিল্পীরা….

admin

নূরজাহান নীরা,বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

তীব্র খরতাপে পুড়ছে নগরজীবন। চৈত্রের রৌদ্রদগ্ধ দিন জানান দিচ্ছে দরজায় কড়া নাড়ছে পহেলা বৈশাখ। আর সেই উৎসবকে ঘিরে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন শেরপুরের নালিতাবাড়ীর পালপাড়ার মৃৎশিল্পীরা। তৈরি হচ্ছে মাটির খেলনাসহ, বিভিন্ন তৈজসপত্র।

 

বাঙ্গালি জাতির অন্যতম ঐতিহ্য মৃৎশিল্প। এই শিল্পের চাহিদা বছরের অন্যসব সময়ে না থাকলেও পহেলা বৈশাখে মাটির তৈরি জিনিসপত্র ছাড়া যে চলেই না। তাই অন্যান্য সময়ের চেয়ে একটু বেশিই ব্যস্ত সময় পাড় করতে হচ্ছে মৃৎশল্পীদের।

 

পালপাড়ায় সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মৃৎশিল্পীরা গড়ছেন মাটির গাছ, পাখি, ফুল, ফুলের টপ, ফলমূলসহ বিভিন্ন বাসনকোসন। তারা মনের মাধুরী মিশিয়ে বিভিন্ন মাটির তৈরির খেলনার আকৃতি দিচ্ছেন।

শেরপুরের নালিতাবাড়ী পাল পাড়ায় প্রায় ৫০টি পরিবার বাস করে। তাদের অনেকেই এই পেশা ছেড়ে দিয়েছেন। তবে কেউ কেউ ঐতিহ্যকে আকরে ধরে আছেন এখনো।

এই শিল্পের প্রধান উপকরণ মাটি। তাই মৃৎশিল্পীরা বিভিন্ন নদী থেকে মাটি সংগ্রহ করেন। চাকার মাধ্যমে মাটিকে বিভিন্ন আকৃতি দেয়া হয়। তারপর সেই মাটির জিনিস পত্রগুলো আগুনে পুড়িয়ে শক্ত করা হয়।

মৃৎশিল্পীরা জানান, বাসনকোসনের চেয়ে খেলনা সামগ্রীর চাহিদা অনেক বেশি। বিভিন্ন মেলা, ঈদ, পূজাসহ বিভিন্ন উৎসবে এসব পণ্য বেশি বেচা হয়ে থাকে।

পালপাড়ার বাসিন্দা শ্রীমতী রানী পাল বলেন, আমাদের এখন দিন রাত কাজ করতে হচ্ছে। এই পহেলা বৈশাখেই আমাদের বেচা সবচেয়ে বেশি হয়।সঞ্চয় পাল বলেন, বর্তমানে মাটির জিনিসপত্রের কদর কমে গেছে। তবে পহেলা বৈশাখে একটু কদর বাড়ে।

৯/৪/২০১৭/১৬০/নু/নী/

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।