বসন্তকাল, রবিবার, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,১৬ই রজব, ১৪৪২ হিজরি, দুপুর ১২:২৭
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

বিমানে উঠে মোটেও যা করবেন না….

admin

তৌহিদ, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

বিমান ওঠানামার সময় ঘুমালে বিপদ: যখন রানওয়ে থেকে বিমান ওড়ার প্রস্তুতি নিতে শুরু করে এবং যখন বিমান গন্তব্যে পৌঁছে রানওয়েতে নামতে থাকে, ওই মুহূর্তে আপনার কানের ভেতর চারপাশের বাতাসের প্রেসার খুব দ্রুত বেড়ে যাবে। এই আচমকা বাতাসের গতির সাথে ব্যালেন্স করার জন্য তখন চুইংগাম চিবানো যেতে পারে। অথবা মুখ দিয়ে শ্বাসপ্রশ্বাস নিয়ে নাক বন্ধ করে রাখতে হবে। যদি তা না করেন কিংবা ঘুমিয়ে পড়েন, তাহলে খুব অস্বস্তি অনুভব করতে পারেন। বাতাসের চাপে আপনার কানের শ্রবণশক্তি কিছুটা কমেও যেতে পারে!

 

খালি পায়ে হাঁটা উচিৎ নয়: ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্টসরা বলেন, তারা প্রায়ই দেখেন বিমানে উঠেই কিছু মানুষ খালি পায়ে হাঁটা শুরু করে। তারা বাথরুমে যাওয়ার জন্য কিংবা গ্যালারির আশেপাশে ঘুর ঘুর করতে যায় খালি পায়ে। এটি অবশ্যই অনুচিত। কারণ, বিমানের কার্পেটগুলো নানানরকম জীবাণুতে ভর্তি থাকে। তাছাড়া অনেকসময় যাত্রীরা গ্লাস ফেলে দেয়, ভাঙ্গা কাচের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা কার্পেটে আটকে থাকে। এতে পা কেটে যাওয়ার সম্ভাবনা। তাই খালি পায়ে হাঁটা কারোরই উচিৎ নয়।

 

পুরো জার্নিতেই সিটের মধ্যে বসে থাকবেন না: অনেকে প্রথমবার বিমান যাত্রায় নার্ভাস থাকেন। তাই সারাক্ষণই হয়তো সিটের মধ্যে চুপচাপ বসে থাকেন। কিন্তু বিমানের মধ্যে সারাক্ষণ বসে থাকলে পায়ের মধ্যে রক্তজমাটের ঝুঁকি সৃষ্টি হয়। তাই কিছু সময় আশেপাশে হাঁটলে এই সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যায়। এছাড়া বিমান ভ্রমণে অতিরিক্ত আঁটসাঁট জামা না পড়াই শ্রেয়।

 

অতিরিক্ত মদ্যপান নয়: বিভিন্ন সিনেমাতেও এমন দেখানো হয়। এয়ার হোস্টেসরা কী চমৎকার ওয়াইন আর গ্লাস দিয়ে যায়। যদি ওসব দেখে ভাবেন জীবনের প্রথম বিমানযাত্রায় প্রচুর মদ খাবেন, তাহলে সিদ্ধান্তটা একটু পরিবর্তন করুন। অ্যালকোহল শরীরকে শুষ্ক করে দেয়। বলা হয়, বিমানের এক পেগ মদ জমিনের দুই পেগ মদ্য পানের সমান! শরীরে খুব দ্রুত অ্যাফেক্ট করে। যা আপনার পুরো যাত্রাকে মাটি করে দেয়ার জন্যে যথেষ্ট।

 

আছে জীবাণুর ভয়: অনেকে আছেন যারা এমন কিছু কাজ করবে যাতে মানুষ বোঝে যে তারা বিমানের রেগুলার যাত্রী, বিমানে খায় বিমানে ঘুমায়। একটু ওভারস্মার্টন্যাস দেখানোর জন্যে তারা বিমানে শর্ট প্যান্টও পড়ে। কিন্তু এটি অনুচিত। কারণ, আপনি যে সিটে বসবেন ইতিপূর্বে ওই জায়গায় আরো সহস্র মানুষের পশ্চাতদেশ পড়েছে। এলার্জিসহ নানান রোগ হয়তো আপনি উপহার হিসেবে পেয়ে যেতে পারেন ওভারস্মার্টন্যাস দেখাতে গিয়ে। বিমানের যেসব জায়গায় সবচেয়ে বেশি জীবাণুর বিচরণ সেটা হচ্ছে বাথরুম। এখানে নিজেকে জীবাণুর হাত থেকে বাঁচানোর জন্যে ভালো ভাবে হাত ধুয়ে তারপর কাগজের টিস্যু দিয়ে ফ্ল্যাশ বাটন প্রেস করুন।

 

হঠাৎ খারাপ বোধ করলে: প্রথমবার বিমানে যাত্রা করলে আপনার খারাপ লাগতেই পারে। কখনো বমি ভাব আসতে পারে। মাথা ঘুরাতে পারে। এটা অস্বাভাবিক নয়। নার্ভাসনেস থেকেও এমন হতে পারে। তাই যদি খারাপ অনুভব করেন, কেবিন ক্রুদের সাথে সাথে জানান। কারণ, তাদেরকে জরুরী স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে ট্রেইনিং দেয়া হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা সম্পর্কে তারা খুব ভালো ধারণা রাখেন।

 

পানীয়ের মাঝে বরফ ব্যবহার বাদ দিন: ২০০৪ সালের একটি গবেষণায় জানা যায়, বিমানে যে পানি সাপ্লাই করা হয় তার মধ্যে মাত্র ১৫ শতাংশ স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়! বাদ বাকি পানি স্বাস্থ্যসম্মত নয়। বিমানে বিভিন্ন পানীয়র সাথে যে বরফ দেয়া হয় সেগুলোও তৈরি হয় ওই সাপ্লাইয়ের পানিতে।

 

চা-কফি বেশি নয়: বিমান ভ্রমণে চা-কফিসহ ক্যাফেইন মিশ্রিত খাবার শরীরকে পানিশূন্য করে দেয়। এগুলো পরিহার করাই শ্রেয়। আর বিমানে উঠলে অন্যান্য পানীয়ের চেয়ে বোতলজাত মিনারেল ওয়াটার বেশি খাওয়া উচিৎ।

 

বিমানে বসে বোম নিয়ে জোকস নয়: আমাদের অনেকের অভ্যাস স্থান-কাল-পাত্র না বুঝেই জোক করা। লঞ্চে উঠে যেমন লঞ্চ ডুবে যাবে বলা ঠিক না, তেমনি বিমানে উঠে বিমান ব্ল্যাস্ট হবে, বোমের আঘাত আসবে এসব বিষয়ে ফাজলামো করেও কোনো কথা বলা ঠিক না। বিশেষ করে, বিমানের ফ্ল্যাইট অ্যাটেন্ডেন্টরা এসব শুনলে তারা বিমান থেকে যাত্রীকে সেই ফ্লাইট থেকে বের করে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। আপনার নিরপরাধ জোকস কখনো কখনো তারা নিরাপত্তার হুমকি ভেবে বসতে পারে।

১৩-০৬-১৭-০০-১২০

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।