বসন্তকাল, শনিবার, ২১শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৬ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,২২শে রজব, ১৪৪২ হিজরি, রাত ১১:১০
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

তারা এক এক জন ৯৬ সন্তানের বাবা…

admin

ডেস্ক রিপোর্ট, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

সারা বিশ্ব যখন জনসংখ্যা কমাতে বিভিন্ন ধরনের পদ্ধতি প্রয়োগ করছে, পাকিস্তান তখন হাঁটছে অন্য পথে। ৯৬ সন্তানের বাবা পাকিস্তানের তিন নাগরিক। দীর্ঘ ১৯ বছর পরে পাকিস্তানের জনগণনা শুরু হয়েছে। সেখানেই ধরা পড়েছে এই ব্যাপারটি। পাকিস্তানে জনসংখ্যা দ্রুত হারে বাড়ছে, এই তথ্য আগেই প্রকাশ পেয়েছিল। এই বিষয়ে নিজেদের উদ্বেগের কথা জানিয়েছিল সে দেশের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। কিন্তু এসব বিষয় থেকে উদাসীন তিন পাকিস্তানি বাবার মধ্যে এক বাবা জানান, ‘‌আল্লাহ বলেছেন, তাই জন্ম দিয়েছি। ’‌

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে পাকিস্তানে জন্মের হার সবচেয়ে বেশি। বিশ্বব্যাংক এবং সরকারি সূত্র অনুসারে, পাকিস্তানে একজন নারী পিছু তিন সন্তান। জনসংখ্যার অনুপাতে দেখা যাচ্ছে যা বড্ড বেশি। ৩৬ জন সন্তানের বাবা গুলজার খান বলেন, ‘‌আল্লাহ পুরো বিশ্বকে এবং মনুষ্যজাতিকে তৈরি করেছেন, তাই আমি কেন বাচ্চা জন্ম দেওয়ার স্বাভাবিক প্রক্রিয়া বন্ধ করব?’‌ ইসলাম পরিবার পরিকল্পনাকে প্রতিরোধ করছে বলে তিনি বিশ্বাস করেন। পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমের বান্নুরের ৫৭ বছরের পাক বাসিন্দা মাস্তান খান ওয়াজিরের তিন স্ত্রী। তিনজনই গর্ভবতী। ২২ সন্তানের বাবা বলেন, ‘‌আমরা আরও শক্তিশালী হতে চাই। আমার সন্তানদের ক্রিকেট খেলার জন্য অন্য কোনো বন্ধুর দরকার নেই, তারা নিজেরাই ক্রিকেটের পুরো দল। ’‌

গুলজার খানের ভাই মাস্তান খান ওয়াজির ১৫ জন ভাই–বোনের মধ্যে একজন, তাঁর নিজেরই তিনটি স্ত্রী এবং ২২টি সন্তান। ভাইয়ের মতো তিনিও জানান, তাঁর নাতি–নাতনি সংখ্যায় যেন প্রচুর হয়, এমন যে গুনে শেষ করা না যায়। তিনি বলেন, ‘‌আল্লাহ আমাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন খাদ্য দেওয়ার এবং আমাদের রক্ষা করার। কিন্তু মানুষের বিশ্বাস নেই আল্লাহর ওপর। ’‌ ৩৮টি সন্তানের বাবা জান মহম্মদ ১০০টি সন্তানের বাবা হতে চান। তিনি বলেন, ‘‌বাবা হতে গেলে বয়স কোনো ব্যাপার নয়, ইচ্ছাশক্তিই আসল। আমি আরও মুসলিম সন্তানকে জন্ম দিতে চাই, মুসলিম জাতির কলেবর বাড়াতে চাই, যাতে শত্রুরা মুসলিম সম্প্রদায়কে ভয় পায়। মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত আরও বেশি করে সন্তানের জন্ম দেওয়া। ’‌

১৯৯৮ সালে পাকিস্তানে যখন শেষ জনগণনা হয়, সেই সময় পাকিস্তানের জনসংখ্যা ছিল ১৩.‌৫ কোটি। ১৯ বছর পরে ফের জনগণনা শুরু হয় পাকিস্তানে, যা শেষ হবে জুলাইয়ে। সরকারি মতে যা ২০ কোটি হবে বলে জানা গেছে। এরই মধ্যে তিন পাক নাগরিকের ৯৬টি সন্তান পাকিস্তান সরকারকে ভাবিয়ে তুলেছে। যদিও নিরুত্তাপ তিন পাক নাগরিক জানান, ‘‌আল্লাহর ইচ্ছাতেই সব কিছু। ’‌ পাকিস্তানে এই  জনবিস্ফোরণের দায় যাদের, সেই বাবারা অবশ্য এতটুকু অনুতপ্ত নন।

১২-০৬-১৭-০০-১৪০

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।