বসন্তকাল, সোমবার, ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,১৭ই রজব, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৩:২৯
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

ইফতারি বাজারে ইফতারের রমরমা আয়োজন…

admin

মনির জামান, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

রোজার প্রথম দিনই জমে উঠেছে রাজধানীর ইফতার বাজার। প্রতি বছরের মতো এবারও ফুটপাত ও অলিগলিতে পসরা সাজিয়ে বসেছে মৌসুমী ইফতারিবিক্রেতারা। আর মজাদার ইফতারের খোঁজে দোকানগুলোতে ভিড় জমাতে শুরু করেছেন রোজাদাররা। রবিবার বিকালে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে।

বিভিন্ন ইফতারির দোকান ঘুরে দেখা যায়, নানা স্বাদের ইফতারসামগ্রীতে দোকানগুলো ভরে গেছে। ক্রেতারাও বিভিন্ন দোকান ঘুরে নিজেদের পছন্দমতো ইফতারি কিনছেন।

দোকানগুলোতে মুড়ি, ছোলা, আলুর চপ, ডিম চপ, বেগুনি, আখনি, ছানা, পেঁয়াজু, খিচুড়ি, হালিম, কাবাব, বাখরখানি, ফিরনি, দই, বিভিন্ন ধরনের ভাজি-বড়া, বিরিয়ানিসহ নানা ধরনের ইফতারী চোখে পড়ার মতো। সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য দোকানিরা খোলা রাস্তায় স্তরে স্তরে ইফতারপণ্য সাজিয়ে রাখছেন।

রবিবার বিকাল তিনটা থেকে সোয়া পাঁচটা পর্যন্ত ফার্মগেট, কারওয়ান বাজার, কলাবাগান, পান্থপথ, মগবাজার, বাংলামটর, তেজকুনিপাড়া, হাতিরপুল, গ্রিন রোড, বসুন্ধরার পেছনের গলিতে গিয়ে দেখা গেছে, ইফতারসামগ্রী কিনতে রোজাদারদের প্রচণ্ড ভিড়। অসহনীয় গরমের কারণে ইফতারসামগ্রী কিনতে ক্রেতাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

আখের গুড়, মুড়ি, লেবু, কলা, চিড়া, আম, খেজু নানা রকমের শরবত আপেল কিনতে ক্রেতাদের ভিড়ও দেখা গেছে।

ব্যবসায়ীরা জানান, প্রথম রমজানে দুপুর থেকেই ইফতার সামগ্রী বিক্রি শুরু হয়েছে। গতবারের চেয়ে এবার ভালো  বিক্রি হবে বলে আশা প্রকাশ করছেন তারা।

বসুন্ধরা মার্কেটের পিছনের গলিতে এক ইফতারী বিক্রেতা বলেন। তিনি প্রতি রমজানেই সেখানে ইফতারি বিক্রি করে থাকেন। তিনি বাংলারিপোর্টকে জানান, গত কয়েক বছর থেকে তিনি ওই গলিতে ইফতারী বিক্রি করে আসছেন। ওই গলিতে ইফতাসামগ্রী ভালোই বিক্রি হয়।

ইফতার কিনতে আসা এক রোজাদার বাংলারিপোর্টকে বলেন, রমজানে দোকন থেকে ইফতারী কেনার মজাটাই আলাদা। দোকানগুলোতে অনেক সুস্বাদু ইফতারী বিক্রি হয়।

এক কলেজছাত্রী বাংলারিপোর্টকে জানান, তিনি ফার্মগেট এলাকায় একটি ছাত্রীনিবাসে থাকেন। তাই বাইরে থেকে ইফতারি কিনে নিচ্ছেন।

কারওয়ান বাজারে ইফতারি কিনতে আসা একজন বাংলারিপোর্টকে জানান, তিনি প্রতিবারের মতো এবারও রোজা রেখেছেন। শুধু তিনি নয়, তার পরিবারের বাকি সদস্যরাও রোজা রেখেছেন। তাই তিনি ইফতারি ক্রয় করছেন।

এদিকে, ফুটপাত ও অলিগলি ছাড়াও রেস্টুরেন্টগুলোতে ইফতারীর পসরা সাজিয়ে বসেছে দোকানিরা। ওসব দোকানে খাসির গ্রীল চাপ, খাসির লেগ কাবাব, খাসির লেগ রোস্ট, চিকেন ফুল রোস্ট, জিলাপী, চানাবুট, জালি কাবাব, সামী কাবাব, চিকেন ফ্রাই, চিকেন টোস্টার, চিকেন উইংস, চিকেন সাসলিক, চিকেন রোল, চাইনিজ রোল, স্প্রিং রোল, ভেজিটেবিল রোল, চিকেন অন্তন, খাসির হালিম, নারগীস কাবাব, গুমনি, নিমকপাড়া, বুন্দিয়া, পিয়াজু, বেগুনি, ফুলুরী, নারিকেল, কচুরী, আলুচপ, নিমকী, ডিমচপ, সিঙ্গাড়া, মাটন সমুচা, চিকেন সমুচা, দই বড়া, ফালুদা, ফিরনি, লাচ্ছি, লাবাংসহ বিভিন্ন ধরনের ইফতারি পাওয়া যাচ্ছে।

কারওয়ান বাজারস্থ হোটেল সুপারস্টারের ইফতারী বিক্রেতা বাংলারিপোর্টকে জানান, বেলা ২টা থেকেই তারা ইফতারী বিক্রি করছেন। তখন থেকেই তাদের দোকানে রোজাদারদের ভিড় লেগে আছে।

কোন ধরনের ইফতারী আইটেম বেশি বিক্রি হচ্ছে এমন এক প্রশ্নের জাবাবে তিনি বলেন, নির্দিষ্ট কোন আইটেম বেশি বিক্রি হচ্ছে না। ক্রেতারা তাদের পছন্দের আইটেম কিনছেন।

২৮-০৫-২০১৭-০০-১১০-২৮

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।