ফুলদানী নির্বাচন করুনঃ

ফুল সাজাতে তো অবশ্যই আপনার ফুলদানী প্রয়োজন। কথা হচ্ছে, কি ধরনের ফুলদানী নির্বাচন করবেন ফুল সাজাতে? এক্ষেত্রে লম্বা ফুলদানী নির্বাচন না করে চ্যাপ্টা ও চওড়া জাতীয় ফুলদানী নির্বাচন করুন। এতে করে আপনি খুব সহজে ফুল সাজাতে পারবেন।

বাজারে নানা ধরনের মাটির এবং সিরামিকের চওড়া ফুলদানী পাওয়া যায়। সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন। কিংবা দই খাওয়া শেষে দইয়ের পাত্রও এই কাজে ব্যবহার করতে পারেন।

এবার বেস তৈরি করুনঃ

অনেকে ফুলদানী সাজানোর জন্য শোলা ব্যবহার করেন। এই কাজটি করবেন না। বরং ফলদানীতে কিছুটি মাটি চেপে বসিয়ে দিন। এবার আপনার দরকার ভিন্ন রকমের পাতা। কমপক্ষে তিন ধরনের পাতা ব্যবহার করুন ফুলদানী সাজাতে।

অপেক্ষাকৃত গাঢ় ও লম্বাটে পাতাগুলো প্রথমে ফুলদানীর চারপাশ দিয়ে ছড়িয়ে সাজান। মাঝের দিকটাতে দিন কিছু লতানো পাতা। দুই এক গোছা ঘাসফুলও ব্যবহার করতে পারেন। ব্যাস আপনার ফুলদানীর বেস সাজানোর কাজ সমাপ্ত।

ফুল সাজান ইচ্ছেমতঃ

এবার আপনি আপনার ইচ্ছেমত সাজাবেন। পাতার ফাঁকে ফাঁকে গোলাপ, রজনীগন্ধা, জারবেরা, গ্লাডিওলাস… কিংবা আপনার পছন্দের অন্য কোন ফুল সাজিয়ে দিন। ঋতুর সাথে তাল মিলিয়ে ফুল নির্বাচন করুন। এই যেমন এখন কেয়া লিলি, মে ফুল পাওয়া যাচ্ছে।

ফুটন্ত ফুলের পাশাপাশি কিছু ফুলের কলি দিতে ভুলবেন না কিন্তু। এগুলো আপনার ফুলদানীতে সৌন্দর্যের নতুন মাত্রা এনে দিবে। চাইলে কিছু বুনোফুল দিয়েও সজাতে পারেন। ফুল নির্বাচন করার ক্ষেত্রে সতেজ ফুলগুলো বেছে নিন।

এবার সময় কেটে ঠিক করারঃ

পাতা ফুল দিয়ে সাজানো শেষে আপনার কাজ হল একটু কাটাই বাছাই করে নেওয়া। কেঁচি দিয়ে কিছু পাতা কোনাকুনি করে কেটে দিন। কিছু পাতায় নকশা করুন। এতে ফুলদানীর ফুলগুলো অন্যরকম লাগবে।

হয়ে গেল আপনার ফুলদানীতে ফুল সাজানো। এবার ড্রয়িং রুমের সেন্টার টেবিলে কিংবা ড্রেসিং টেবিলের কোনায় সেট করুন ফুলদানীটি। সময় করে খানিকটা পানি স্প্রে করতে ভুলবেন না যেন।

২০-০৫-২০১৮-০০-২১০-২০-আ-হৃ