বসন্তকাল, শনিবার, ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,২৮শে শাবান, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৯:২৫
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

১মিনিটে চালু হলো ফ্লাইওভারের সোনারগাঁও অংশ…

admin

ইব্রাহিম খলিল প্রধান, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হলো মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের এফডিসি মোড় থেকে সোনারগাঁও হোটেলের সামনের অংশ। বুধবার সকাল ১০টায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এ অংশটির উদ্বোধন করেন।

ফ্লাইওভারের এ অংশের দৈর্ঘ্য ৪৫০ মিটার। এতে দুটি লেইন। মগবাজারের দিক থেকে আসা যানবাহন এ র‌্যাম্প হয়ে কারওয়ান বাজারে নামতে পারবে।

উদ্বোধনকালে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, জুন মাসের মধ্যেই ফ্লাইওভারের অবশিষ্ট অংশের কাজ শেষ হবে। ফ্লাইওভার হলেই যে রাজধানীর যানজটমুক্ত হবে তা নয়। তবে যানজট অনেকটাই কমবে।

তিনি জানান, ঢাকা শহরের যোগাযোগ ব্যবস্থা নিয়ে একটি মহাপরিকল্পনা করা হয়েছে, এ পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে নগরীতে আর যানজট থাকবে না।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেক, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী শ্যামা প্রসাদ অধিকারী, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর ও ফ্লাইওভারের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এমসিসিসি-তমা কনস্ট্রাকশন লিমিটেডের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মগবাজার মৌচাক ফ্লাইওভার প্রকল্পের প্রাথমিক নকশায় এই র‌্যাম্পটি এফডিসি রেলক্রসিংয়ে নামার কথা ছিল। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এটি রেললাইনের উপর দিয়ে সোনারগাঁও হোটেল পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ২০১১ সালের ৮ মার্চ একনেক এই প্রকল্প অনুমোদন করে। প্রথমে প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয় ৭৭২ কোটি ৭০ লাখ টাকা। পরে ২০১৬ সালের ১৯ জানুয়ারি একনেক সভায় প্রকল্পের ব্যয় বৃদ্ধি করে এক হাজার ২১৮ কোটি ৮৯ লাখ টাকায় উত্তীর্ণ করা হয়। ধাপে ধাপে সময় বাড়িয়ে চলতি বছরের জুন পর্যন্ত ঠিক করা হয়েছে।

তিনটি উৎস থেকে প্রকল্পে অর্থায়ন করা হয়েছে। এর মধ্যে সরকারের ৪৪২ কোটি ৭৩ লাখ টাকা, সৌদি ফান্ড ফর ডেভেলপমেন্ট (এসএফডি) এবং ওপেক ফান্ড ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ওএফআইডি) দিয়েছে ৭৭৬ কোটি ১৬ লাখ টাকা। ২০১৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

প্রকল্পটি তিনটি প্যাকেজে ভাগ করে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। প্যাকেজগুলো হলো- ডব্লিউ-৪, ৫ ও ৬। তেজগাঁও সাতরাস্তা থেকে সোনারগাঁও লেভেল ক্রসিং হয়ে মগবাজার হলি ফ্যামিলি পর্যন্ত অংশ প্যাকেজ-ডব্লিউ-৪, শান্তিনগর থেকে মালিবাগ, রাজারবাগ, মৌচাক হয়ে রামপুরা পর্যন্ত অংশ প্যাকেজ-৫ এবং বাংলামোটর থেকে মগবাজার হয়ে মৌচাক পর্যন্ত অংশ প্যাকেজ-৬।

চারলেন বিশিষ্ট এই ফ্লাইওভার সোনারগাঁও রেলক্রসিংয়ের জন্য ৪৫০ মিটার দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পেয়ে মোট দৈর্ঘ্য হয়েছে ৮.৭০ কিলোমিটার। লেভেল ক্রসিংয়ের জন্য সর্বনিন্ম হেডরুম ৭.২ মিটার এবং সড়কে ৫.৫ মিটার রাখা হয়েছে। ওঠা-নামার জন্য রাখা হয়েছে ১৫টি র‌্যাম।

আর এই ফ্লাইওভার প্রকল্পের আওতায় তিনটি রেলক্রসিং-সোনারগাঁও, মগবাজার ও মালিবাগ এবং আটটি মোড়-সাতরাস্তা, এফডিসি, মগবাজার, ওয়ারলেস গেট, মৌচাক, মালিবাগ, রামপুরা ও শান্তিনগর অতিক্রম করেছে।

১৭/৫/২০১৭/০-৯০-১৭/

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।