শরৎকাল, সোমবার, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,৪ঠা সফর, ১৪৪২ হিজরি, ভোর ৫:৪০
মোট আক্রান্ত

৩৪৮,৯১৬

সুস্থ

২৫৬,৫৬৫

মৃত্যু

৪,৯৩৯

  • জেলা সমূহের তথ্য
  • ঢাকা ৯৩,২২৭
  • চট্টগ্রাম ১৮,১১৭
  • বগুড়া ৭,২৮৮
  • কুমিল্লা ৭,২৩৯
  • ফরিদপুর ৬,৯৩৫
  • নারায়ণগঞ্জ ৬,৬৩২
  • সিলেট ৬,৫৩৬
  • খুলনা ৬,১৮৩
  • গাজীপুর ৫,৩০৬
  • নোয়াখালী ৪,৮৬৫
  • কক্সবাজার ৪,৪৫৪
  • যশোর ৩,৭১১
  • ময়মনসিংহ ৩,৫৮৮
  • মুন্সিগঞ্জ ৩,৩৯৭
  • বরিশাল ৩,৩৭৩
  • দিনাজপুর ৩,২৪০
  • কুষ্টিয়া ৩,১২২
  • টাঙ্গাইল ২,৯৫৫
  • রাজবাড়ী ২,৯৪৫
  • কিশোরগঞ্জ ২,৬৮২
  • রংপুর ২,৬৮০
  • গোপালগঞ্জ ২,৫১৭
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২,৪১১
  • সুনামগঞ্জ ২,২৭৮
  • নরসিংদী ২,২৪৩
  • চাঁদপুর ২,২২৩
  • লক্ষ্মীপুর ২,০৮৫
  • সিরাজগঞ্জ ২,০৮৩
  • ঝিনাইদহ ১,৮৩৮
  • ফেনী ১,৭৯৪
  • হবিগঞ্জ ১,৬৯৭
  • মৌলভীবাজার ১,৬৫৫
  • শরীয়তপুর ১,৬৪৬
  • জামালপুর ১,৪৫৯
  • মাদারীপুর ১,৪২৮
  • মানিকগঞ্জ ১,৩৮৬
  • চুয়াডাঙ্গা ১,৩৭৭
  • পটুয়াখালী ১,৩৭৩
  • নড়াইল ১,২৮৪
  • নওগাঁ ১,২৫১
  • গাইবান্ধা ১,১০৮
  • সাতক্ষীরা ১,০৮৯
  • রাজশাহী ১,০৮৫
  • পাবনা ১,০৬৬
  • পিরোজপুর ১,০৪৭
  • জয়পুরহাট ১,০৪২
  • ঠাকুরগাঁও ১,০৩২
  • নীলফামারী ৯৯৩
  • বাগেরহাট ৯৬৯
  • নাটোর ৯৪৮
  • বরগুনা ৮৯২
  • মাগুরা ৮৭৯
  • রাঙ্গামাটি ৮৭৯
  • কুড়িগ্রাম ৮৬৪
  • লালমনিরহাট ৮১৫
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৭৪৭
  • বান্দরবান ৭৪৬
  • নেত্রকোণা ৭০৮
  • ভোলা ৭০৬
  • ঝালকাঠি ৬৮৩
  • খাগড়াছড়ি ৬৬৩
  • মেহেরপুর ৫৮৯
  • পঞ্চগড় ৫৫৬
  • শেরপুর ৪৬১
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |

সারাদেশ

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

যুক্তরাজ্যের সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশী তিন নারী…

ডেস্ক রিপোর্ট, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

যুক্তরাজ্যের আগামীকাল অনুষ্ঠেয় সংসদীয় নির্বাচনে তিনজন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নারী প্রার্থী গণমাধ্যমে বিশেষ মনোযোগ আকর্ষণ করছেন। অনেকেই এই তিনজনকে বাংলাদেশের ‘তিনকন্যা’ হিসেবে অভিহিত করছেন।

আজ ৮ জুন অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মোট ১৪জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক, রুশনারা আলী এবং রূপা হক জনগণের সবচেয়ে বেশি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। তারা তিনজনই বিরোধী লেবার পার্টির প্রার্থী। তারা আগেও নির্বাচিত হয়েছেন। তারা তিনজন যে আসনসমূহ থেকে মাত্র দুইবছর আগে পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন, সেই আসন থেকেই তারা আবার নির্বাচন করছেন।

২০১৫ সালের নির্বাচনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মোট ১১জন প্রার্থী ছিল। তাদের মধ্যে বাংলাদেশের তিনকন্যা রেকর্ড বিজয় অর্জন করেন। ওই বিজয়ই তাদের তিনজনকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার ঘটনার (ব্রেক্সিট) পরবর্তিত কঠিন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অনুপ্রাণিত করেছে।

ব্রিটেনের আজকের নির্বাচনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ১৪জন প্রার্থীর মধ্যে তিনকন্যাসহ ৮জন লেবার পার্টি থেকে, একজন লিবারেল ডেমোক্র্যাট পার্টি থেকে এবং ৪জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি ও শেখ রেহানার কন্যা টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক তার লন্ডনের ‘হ্যাম্পসটেড এ্যান্ড কিলবুর্ন’ সংসদীয় আসনটি রক্ষার জন্য লড়ছেন। টিউলিপের প্রতিদ্বন্দ্বিরা হলেন লিবারেল ডেমোক্র্যাট পার্টির ক্রিস্টি অ্যালান, কনজারভেটিভ পার্টির ক্লেয়ার লুইস লেল্যান্ড, গ্রীন পার্টির জন ম্যানসক এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হুফ ইস্টারব্রুক ও রেইনবো জর্জ ওয়েইস।

রুশনারা আলী বাঙ্গালি অধ্যুষিত ‘বেন্থাল গ্রিন অ্যান্ড বো’ আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তার আসনে অন্য প্রার্থীরা হলেন কনজারভেটিভ পার্টির চার্লোট চিরিকো, লিবারেল ডেমোক্র্যাট পার্টির উইলিয়াম ডায়ার, গ্রীন পার্টির অ্যালিস্টার পোলসন, ইউকেআইআইপি’র ইয়ান ডি উলভেরন এবং স্বতন্ত্র আজমল মনসুর।

রূপা হক আজকের নির্বাচনে তার ‘ইয়ালিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাক্টন’ আসন রক্ষার জন্য লড়ছেন। তার দুই প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছেন কনজারভেটিভ পার্টির জয় মরিসে এবং লিবারেল ডেমোক্র্যাট পার্টির জন বল।

এর আগে ২০১৫ সালের ৭ মে তারিখে যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ৬৫০ আসনের পার্লামেন্টে ৩৩১ আসন পেয়ে কনজারভেটিভ পার্টি জয়লাভ করে। ওই নির্বাচনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ১১জন প্রার্থীর মধ্যে লেবার পার্টি থেকে সর্বাধিক ৭জন, লিবারেল ডেমোক্র্যাট পার্টি থেকে ৩জন এবং কনজারভেটিভ পার্টি থেকে ১জন মনোনয়ন লাভ করে। এর মধ্যে লেবার পার্টি মনোনীত ‘তিনকন্যা’ রুশনারা আলী, টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক ও রূপা হক জয়লাভ করেন।

গত নির্বাচনে (২০১৫) টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক যুক্তরাজ্যের ১০টি কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ আসনের অন্যতম ‘হ্যাম্পস্টেড এ্যান্ড কিলবুর্ন’ আসন থেকে বিজয়ী হন। নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি লেবার পার্টি নেতা জেরেমি করবিনের ছায়া মন্ত্রিসভায় নিযুক্ত হন। তিনি ছায়া শিক্ষামন্ত্রী এনজেলা রেয়নারের চার সদস্যের টিমে ‘শ্যাডো মিনিস্টার অব আর্লি ইয়ারস এডুকেশন’ হিসেবে যোগদান করেন। পরে লেবার পার্টি নেতা জেরেমি করবিনের একটি সিদ্ধান্তের সাথে ভিন্নমত পোষণ করে তিনি ছায়া মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন।

টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক লন্ডনের মিটচ্যামে ১৯৮২ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি লন্ডনের কিংস কলেজ থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এবং রাজনীতি, নীতি ও সরকার বিষয়ে- দুইটি মাস্টার্স ডিগ্রি লাভ করেন। ইতিপূর্বে তিনি রিজেন্টস পার্ক-এর কাউন্সিলর এবং ক্যামডেন কাউন্সিলের সংস্কৃতি ও কমিউনিটি বিষয়ক ক্যাবিনেট সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। টিউলিপ ২০১০ সালে ক্যামডেন কাউন্সিলে প্রথম বাঙ্গালী নারী কাউন্সিলর নির্বাচিত হন।

 

তিনি ২০১৫ সালে প্রথম পার্লামেন্ট নির্বাচনে ‘বেন্থাল গ্রিন অ্যান্ড বো’ সংসদীয় আসন থেকে ৩২ হাজার ৩৮৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তিনি তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ২৪ হাজার ৩১৭ ভোট বেশি পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির ম্যাথিই স্মিথ পেয়েছিলেন ৮ হাজার ৭০ ভোট।

রুশনারা আলী ২০১০ সালে প্রথম পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হন। তিনিই প্রথম বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ পার্লামেন্ট সদস্য। ২০১৫ সালে তিনি পুননির্বাচিত হন। তার পূর্বপূরুষরা বাংলাদেশের সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার বাসিন্দা ছিলেন।

রূপা হক ২০১৫ সালে প্রথমবার ব্রিট্রিশ পার্লামেন্টের সদস্য নির্বাচিত হন। তার পূর্বপুরুষদের আবাসস্থল উত্তরাঞ্চলীয় পাবনা জেলায়।

ম-জা ০৮-০৬-১৭-০০-১০০

Share on facebook
Facebook
Share on google
Google+
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

সর্বাধিক পঠিত

আরো খবর পড়ুন...

বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম :
প্রধান সম্পাদক : লায়ন মোমিন মেহেদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : লায়ন শান্তা ফারজানা
৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা
email: mominmahadi@gmail.com
shanta.farjana@yahoo.co.uk
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।