ন্যায় বিচার চায় নেইমার…

ডেস্ক রিপোর্ট ,বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম  ব্রাজিলের তারকা ফুটবলার নেইমার ও pen and paperতার পরিবারকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলেছে ডিআইএস নামের সেদেশের একটি বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান। সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতার মতে, বার্সেলোনা তারকা কখনোই শিশুদের আদর্শ হতে পারবেন না।২০১৩ সালে আট কোটি ৬০ লাখ ইউরো ট্রান্সফার ফিতে সান্তোস থেকে বার্সেলোনায় যোগ দেন নেইমার। তবে শুরুতে ট্রান্সফার ফির মোট অংক লুকিয়েছিল স্পেনের ক্লাবটি। এর ফলে তাদের ঠকানো হয়েছে বলে দাবি করে ডিআইএস। নেইমারের ক্রীড়া স্বত্বের ৪০ শতাংশের মালিক ছিল প্রতিষ্ঠানটি।পরে মামলা ঠুকে দেয় ডিআইএস। ওই মামলায় এখন কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে নেইমার ও জড়িত সবাইকে। এবারই প্রথম জনসস্মুখে কথা বলা ডিআইএসের প্রতিষ্ঠাতা দেলসির সোন্দা বলেন, ‘আমাদের শিশুদের জন্য সে উদাহরণ হতে পারে না।’ নেইমারের দলবদলের সময় এক কোটি ৭০ লাখ ইউরোর ৪০ শতাংশ পেয়েছিল ডিআইএস। তবে তাদের দাবি, চুক্তির পুরো অংকের ৪০ শতাংশ পাওয়ার কথা ছিল তাদের। ‘আমরা নেইমারকে বিশ্বাস করেছিলাম। ২০০৮ সালে তার বাবা ও এজেন্টের মাধ্যম যুক্ত হয়েছিলাম। ছেলেটিকে কিনতে আমরা নিলামে অংশ নিয়েছিলাম। আমি তার ভবিষ্যতের ওপর বিনিয়োগ করি। তার পেশাদার অভিষেকের আগেই আমরা তার ওপর বাজি ধরেছিলাম,’ তাদের কথা।

 

‘আমরা ১৬ লাখ ৩০ হাজার ইউরো বিনিয়োগ করেছিলাম। আমরা তার বাবার লন্ডন যাত্রার এবং তার পরিবারের জেরুজালেম যাত্রার খরচ দিয়েছিলাম। এখন এই ছেলে কীভাবে বলে যে, সে আমাকে চেনে না। আমার পিঠে ছুরি মারা হয়েছে। আমরা তার কথায় বিশ্বাস করেছিলাম। আমি একজন আন্তরিক ব্যবসায়ী, বিশ্বাসঘাতক নই। নেইমার এবং তার বাবা ও মায়ের দ্বারা আমি প্রতারিত হয়েছি। নেইমার, তার বাবা-মা ও বার্সেলোনা মিলে এ ষড়যন্ত্র করেছে। আমি ন্যায়বিচার চাই,’ বলেছেন দেলসির সোন্দা। -ওয়েবসাইট

২/৪/২০১৭/২৯/তৌ/আ/