ছয় বলে ছয়টি ওভার বাউন্ডারির…

ডেস্ক রিপোর্ট ,বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

৪ বলে ৯২ রান? ক্রিকেটে যা অবিশ্বাস্য, সেটাই এবার ঘটল ঢাকার একটি ক্রিকেট ম্যাচে। তা-ও আবার বোলারের সৌজন্যে।

ঢাকা ক্রিকেট লিগের দ্বিতীয় ডিভিশনে অনূর্ধ্ব-১৯ বিভাগের সেই ক্রিকেট ম্যাচে দুই প্রতিপক্ষ দল অক্সিওম ও লালমাটিয়া। ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ঘটেছে এ ঘটনা। অবশ্য এখানে ব্যাটসম্যানের কোনো ভূমিকা ছিল না। যা অবদান বোলারের। ওই বোলারের নাম সুজন মামুদ। আম্পায়ারের ওপর রেগে গিয়েই তিনি ৪ বলে ৯২ রান দেওয়ার অবিশ্বাস্য এ কাণ্ড করছেন। ক্রমাগত ওয়াইড ও নো বল করেছেন তিনি।

টসের সময় লালমাটিয়ার অধিনায়ককে কয়েন দেখার অনুমতি দেননি আম্পায়ার। কোনো রকম আলাপ-আলোচনা না করেই তিনি লালমাটিয়াকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। এরই অভিনব প্রতিবাদে এমন কাণ্ড করেছেন ওই বোলার।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে লালমাটিয়া ১৪ ওভারে ৮৮ রানে অলআউট হয়। দ্বিতীয় ইনিংসেই এরপর দেখা যায় অভিনব এই প্রতিবাদ। তারপর সুজন মামুদ এক ওভারে ৩২ বল করেন। চারটি বৈধ ডেলিভারিতে রান ওঠে ১২। তারপর তিনি ১৫টা নো বল এবং ৬৫টি ওয়াইড বল করেন। পুরো ওভার খেলা গড়ানোর আগেই অক্সিওম স্কোর বোর্ডে প্রয়োজনীয় রান তুলে দেয়।

পরে এক বিবৃতিতে লালমাটিয়া ক্লাবের সাধারণ সচিব আদনান রহমান রিপন বলেন, ‘আমাদের অধিনায়ককে টস করার সময় কয়েন দেখতে দেওয়া হয়নি। প্রথমে বল করতে চেয়েছিলাম আমরা। তবে আমাদের জোর করে ব্যাট করতে বাধ্য করা হয়। কিশোর ক্রিকেটাররা তারপর এ রকম ভাবেই প্রতিবাদ জানানোর সিদ্ধান্ত নেয়।’

ক্রিকেটের পরিসংখ্যান বলছে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক ওভারে সবচেয়ে বেশি রান দেওয়ার নজির আছে দুটি। ছয় বলে ছয়টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৩৬ তুলেছিলেন যুবরাজ সিংহ ও হা্র্শেল গিবস। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেও এমন ঘটনা ঘটেছে দুটি।

১২/৪/২০১৭/১০০/তৌ/আ/