চাঁপাইনবাবগঞ্জ-এ অবৈধ ফার্সেসী ও ডাক্তারের সংখ্যা মরাত্মক বৃদ্ধি

আমিরুল মোমেনীন বাবু চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় সর্বত্র প্রশিক্ষণ ও লাইসেন্স ছাড়ায় একশ্রেণির নামকাওয়াস্থে লিখতে পড়তে জানা ব্যক্তি অবৈধভাবে ঔষধ ব্যবসায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছে। এমন অনভিজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা অবৈধভাবে প্রতিষ্ঠিত ঔষধের দোকান পরিলক্ষিত হচ্ছে। প্রকাশ থাকে দীর্ঘদিন ধরে এক শ্রেণির অশিক্ষিত/অর্ধশিক্ষিত ব্যক্তি জেলায় বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ ঔষধের দোকান খুলে ব্যবসা করে আসছে।

ঐ অবৈধ ঔষধের দোকানদারদের কোন পূর্ব অভিজ্ঞতা বা প্রশিক্ষণ কোনটাই নেই। এমনকি তারা ডাক্তারদের প্রেসক্রিশনও ঠিকমত পড়তে পারে না এবং তাদের ঔষধের গ্রুপ সম্পর্কে কোন ধারনা নেই। এছাড়া ঔষধের সেবনের প্রাথমিক বিধি বিধান ও ঐ সব ঔষধ দোকানদারদের জানা নেই। ফলে রোগী ও ক্রেতা সাধারণকে সমস্যা ও হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। আরও উল্লেখ্য যে, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সম্পূর্ণ উদাসীনতা ও নিরবতার কারণে জেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রশিক্ষণ বিহীন ও কোন প্রকার পূর্ব অভিজ্ঞতা ছাড়ায় বহু সংখ্যক পল্লী চিকিৎসকের আবির্ভাব ঘটেছে। যাদের রোগ নির্ণয় ক্ষমতা ও ঔষধ প্রয়োগের মাত্রা আদৌ জানা নেই। ফলে চরম মূল দিতে হচ্ছে ভুক্তভোগীদের।

ঐ সব পল্লী চিকিৎসক নামধারী তথাকথিত চিকিৎসকের ভূল চিকিৎসায় রোগী মারা যাবার ঘটনাও একাধিক শোনা যায়। এলাকাবাসী জনস্বার্থে অবৈধ ঔষধ ব্যবসায়ী ও প্রশিক্ষণ বিহীন পল্লী চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষে জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।