গ্রুপ চেম্পিয়নের জন্য বাংলাদেশের ২৩৪ রান দরকার………..

ডেস্ক রিপোর্ট:বাংলারিপোর্ট২৪.কম

ইমার্জিং টিমস এশিয়া কাপের বি-গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশকে ২৩৪ রানের টার্গেট দিয়েছে পাকিস্তান।1424257206

ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই বাংলাদেশের বোলারদের সামনে একেবারেই সুবিধা করতে পারেনি পাকিস্তান। ৩৫ রানেই তারা হারিয়ে ফেলে চার উইকেট। তখনও ১১ ওভার তিন বল।

এদিন টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মতো ওপেনিংয়ে বোলিং করা সাইফ উদ্দিন

জোড়া আঘাত হানেন প্রতিপক্ষের শিবিরে। নিজের তৃতীয় ওভারের চতুর্থ বলে এলবির ফাঁদে ফেলেন ইমরান বাটকে। এক ওভার বাদে আবারও সাইফ উদ্দিনের আঘাত। এবার তার শিকার ইনফর্ম ইমাম উল হক। সেটাও যথারীতি এলবি। স্লিপে শান্তর হাতে ক্যাচ বানিয়ে অধিনায়ক মোহাম্মদ রিজওয়ানকে ফেরান এই ম্যাচে প্রথমবারের মতো সুযোগ পাওয়া নাইম হাসান।পরের ওভারে জাহিদ আলীকে মাসুম হাসান বোল্ড করে দিলে পাকিস্তানের স্কোর দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৩৫।

দলের এমন বিপর্যয়ে হাল ধরেন হারিস সোহেল ও হাম্মাদ আজম।পঞ্চম উইকে

টে তারা দুজন যোগ করেন ৮৬ রান। মূলত এই জুটিতেই ২০০ পারের স্কোর পায় পাকিস্তান। তবে ব্যক্তিগত ৪ রানে আবুল হাসান রাজু নিজের বোলিংয়ে হারিস সোহেলকে এবং ব্যক্তিগত ২ রানে সাইফ উদ্দিনের বলে মোহাম্মদ মিথুন হাম্মাদ আজমের ক্যাচ না ছাড়লে হয়তো ২০০ রানের অনেক আগেই আটকানো যেত পাকিস্তানকে। শেষের দিকে হোসাইন তালাতের অপরাজিত ৫৭ রানের উপর ভর করে ২৩৩ রান করে পাকিস্তান।

বাংলাদেশের পক্ষে সাইফ উদ্দিন সর্বোচ্চ তিন উইকেট, আবুল হোসেন রাজু ও মা

সুম আহমেদ দুটি করে এবং নাইম হাসান একটি উইকেট পান।

এদিকে ইতিমধ্যে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। তাই দুই দলের গ্রুপ পর্বের ম্যাচটা হতে পারতো ‘গুরুত্বহীন’। কিন্তু এই ম্যাচের ওপর যে নির্ভর করছে সেমিফাইনালের প্রতিপক্ষ কে তা। সেই ম্যাচেও যথারীতি টসে হারেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক।

ফিল্ডিংয়ে নামা বাংলাদেশ দল একটি পরিবর্তন এনেছে একাদশে। প্রথম দুই ম্যাচের একাদশে থাকা রাহাতুল ফেরদৌস জাভেদের পরিবর্তে দলে সুযোগ পেয়েছেন নাইম হাসান।

কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম-২ তে দিনের অপর ম্যাচে নেপালের মুখোমুখি হয়েছে হংকং। ইতিমধ্যে দুই দলই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেওয়ায় ম্যাচটা হয়ে পড়ল নিয়ম রক্ষার ম্যাচ।