ক্ষতি ফসলের, মৃত্যু কৃষকের….

ডেস্ক রিপোর্ট ,বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

পাহাড়ি ঢল ও ভারি বর্ষণে মদন উপজেলার নিম্নাঞ্চলে আগাম

বন্যায় বোরো ধানের জমি তলিয়ে যাওয়ার দৃশ্য দেখে বাড়িতে ফিরেই হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান ঋণ করে বোরো আবাদকারী বর্গা কৃষক রহিছ মিয়া (৫২)। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নেত্রকোনার মদন উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের রুদ্রশ্রী গ্রামে ঘটে এ ঘটনা। দীন মোহাম্মদের চোখের সামনেই বুধবার বিকালে ঋণ ও ধার করে তলার হাওরে ৫ একর বোরো ধানের জমি সিনাই নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে তলিয়ে যায়। এবার ফসলের উৎপাদনও ভালো হয়েছিল। এ ক্ষতি সইতে না পেরে বাড়ি ফিরেই বিলাপ করে হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। রুদ্রশ্রী গ্রামের মৃত মেঘু মিয়ার ছেলে ৫ সন্তানের জনক রহিছ মিয়া স্ত্রী ও পরিবারের সদস্যদের রেখে গেলেন হতাশার মধ্যে। পরিবারের সদস্যরা জানান, হাওর থেকে রহিছ মিয়া বাড়ি ফিরে বিলাপ করে বলছিলেন, অসময়ে পানি এসে সব তলিয়ে গেছে। এক ছটাক ধানও ঘরে আনার কোনো উপায় নেই বলে দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি।

ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান,আগাম বন্যায় ফসলের ক্ষতিতে তার ইউনিয়নের গ্রামে গ্রামে কৃষক পরিবারে আহাজারি ও কান্নার রোল চলছে। তাদের শান্তনা দেবার মতো কোনো ভাষা নেই। রুদ্রশ্রী গ্রামের রহিছ মিয়া এই যন্তনায় মারা গেছে এবং দেওসহিলা গ্রামের বর্গা চাষি আ. কাদির ঋণ করে ৮ একর জমিতে বোরো আবাদ করেছিল। তলিয়ে যাবার দৃশ্য দেখে জমিতেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন এখন পাগলের মতো প্রলেপ করছেন।

পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় কৃষকরা তাদের শেষ সম্বল রক্ষার জন্য বিভিন্ন স্থানে বাঁেধ মাটি কাটা ও সস্নুইচ গেটের ভেতরের পানি সরানোর জন্য দিন রাত ব্যস্ত সময় পার করছে।

৯/৪/২০১৭/৮০/অ/হা/