কী করবেন জরায়ু মুখে ক্যানসার হলে…

ডা.নূরজাহান নীরা, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

বিশ্বে জরায়ু মুখে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে নারীর মৃত্যুর হার বাড়ছে। দক্ষিণ এশিয়া জরায়ু মুখে ক্যানসারের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা।

বাংলাদেশে ক্যানসারে আক্রান্ত নারীদের শতকরা ৩০ জনই জরায়ু মুখে ক্যানসারের শিকার। গড়ে ১৮ জন নারী মারা যায় জরায়ু মুখে ক্যানসারে।

যে কোনো বয়সেই নারীদের জরায়ু ক্যানসার হতে পারে। তবে ৩৫ থেকে ৫৫ বছর বয়সের নারীরা এ রোগের বেশি আক্রান্ত হন। আবার ৫০ বছর বয়স্ক কিংবা এর থেকে বেশি বয়সের নারীরাও জরায়ু ক্যানসারে আক্রান্ত হতে পারেন।

নীরব ঘাতক হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস (এইচপিভি) জরায়ু মুখে ক্যানসারের প্রধান কারণ। অবিন্যস্ত ও অনিয়ন্ত্রিত কোষ বিভাজনের ফলে অস্বাভাবিক বৃদ্ধিপ্রাপ্ত কোষকলার পি-কে টিউমার বলে।

জরায়ু ক্যানসারকে ‘সাইলেন্ট কিলার’ বলা হয়। কারণ এই অসুখ দেখা দিলে অনেক নারীই এর লক্ষণ বুঝতে পারেন না। আবার ভিন্ন লক্ষণ দেখা দিলেও অনেক সময় আমলে নেন না।

নীরব ঘাতক হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস (এইচপিভি) জরায়ু মুখে ক্যানসারের প্রধান কারণ। অবিন্যস্ত ও অনিয়ন্ত্রিত কোষ বিভাজনের ফলে অস্বাভাবিক বৃদ্ধিপ্রাপ্ত কোষকলার পি-কে টিউমার বলে।

টিউমার দু’ধরনের বিনাইন বা শিষ্ট টিউমার ও ম্যালিগন্যান্ট বা দুষ্ট টিউমার। এ ম্যালিগন্যান্ট টিউমারই হলো ক্যানসার। জরায়ুমুখের দুষ্ট টিউমারটিকে বলে জরায়ু মুখের ক্যানসার।

তবে সবার আগে আমাদের জরায়ু মুখে ক্যানসারের লক্ষণগুলো বুঝতে হবে।

মুখে ক্যানসারের লক্ষণগুলো নিম্নে দেয়া হলো;

* নারীদের মেনোপজ হওয়ার পরেও ব্লিডিং হওয়া।

* পেটে অতিরিক্ত ব্যথা কিংবা পেট ফুলে থাকা।

* নিন্মাঙ্গের চারপাশে চাপ লাগা কিংবা ঘন ঘন প্রস্রাবের চাপ আসা।

* গ্যাস, বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য। হালকা খাবারের পর পেট ভরে যাওয়া, পেটে অস্বস্তি লাগা এবং ক্ষুধা কমে যাওয়া জরায়ু ক্যানসারের লক্ষণ হতে পারে।

* বমি বমি ভাব কিংবা বার বার বমি হওয়া।

* যৌনমিলনের সময় ব্যথা অনুভব হওয়া।

* অল্প কাজেই অতিরিক্ত ক্লান্তিবোধ করা।

* অতিরিক্ত ওজন বেড়ে যাওয়া কিংবা হঠাৎ করে অনেক বেশি ওজন কমে যাওয়া।

১৭/৫/২০১৭/০-১৭০-১৭/