কিভাবে নিবেন ত্বকের অ্যাকনে ও র‌্যাশ থেকে মুক্তি…

ডেস্ক রিপোর্ট ,বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমchop

গরম আসা মানেই ত্বকের হাজার একটা সমস্যা। অ্যাকনে, ঘামাচি, র‌্যাশ, কিছু না কিছু লেগেই থাকে। তবে কয়েকটা নিয়ম মেনে চললে এগুলোর মোকাবিলা করা কোনও ব্যাপারই নয়। রইল ‘ওবেলা’র টিপ্‌স। দিনে দু’বার ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধোওয়ার কথা সকলেই জানেন। কিন্তু গরমে সেটাই যথেষ্ট নয়। একটা ভাল ফেস স্ক্রাব দিয়ে ত্বক এক্সফোলিয়েট না করলে ধুলো-ময়লা জমে ত্বকের কোষগুলো বন্ধ হয়ে যাবে। এতেই অ্যাকনের সমস্যা বেড়ে যায়। তাছাড়া বাতাসে আর্দ্রতা বাড়লে মুখ বারবার ঘেমে ফ্যাকাসে দেখাবে। তাই মৃত কোষগুলো সরিয়ে ফেলার জন্যেও স্ক্রাবিং প্রয়োজন। কোনও একটা মাইল্ড ফেস স্ক্রাব ব্যবহার করবেন। হয়ে গেলে ভাল করে ধুয়ে মুখে টোনার লাগান। স্পর্শকাতর ত্বক হলে অ্যালকোহল-ফ্রি টোনার ব্যবহার করাই ভাল। তারপর ময়েশ্চারাইজার অবশ্যই লাগাবেন। অনেকে ভাবেন গরমে ময়েশ্চারাইজারের প্রয়োজন নেই। কিন্তু ধারণাটা ভুল। ত্বকের আর্দ্রতা বজায় না রাখতে পারলে সমস্যা আরও বেড়ে যাবে। যদি আপনার কাছে কোনও ব্যাটারি অপারেটেড ফেস ক্লিনার থাকে, তাহলে সপ্তাহে একদিন স্ক্রাব না করে কোনও ফোম ফেসওয়াশ লাগিয়ে এই ক্লিনার ব্যবহার করতে পারেন। এতেই ত্বক ভালভাবে পরিষ্কার হবে।

বেশি পরিমাণে পানীয়
গরমে জল বেশি খাওয়া প্রয়োজন, সেটা কোনও নতুন কথা নয়। তবে দিনে ২.৫ লিটার জল খাওয়া ছাড়াও শরীরে আরও পানীয় যাওয়া দরকার। ফলের রস খেতে পারেন। বিশেষ করে তরমুজ বা আনারসের। তাছাড়া রোজ সকালে নিজেই ডিটক্স ওয়াটার বানিয়ে নিন। এক লিটার জলে কয়েকটা শসার গোল করে কাটা টুকরো, একটা লেবুর রস আর কিছু পুদিনা পাতা ভিজিয়ে রাখুন। সারাদিনে অল্প অল্প করে খাবেন। এতে হজমক্ষমতাও বাড়বে। চাইলে দু’টুকরো তরমুজও দিতে পারেন এতে।

ত্বকের আর্দ্রতার দিকে খেয়াল রাখুন
ময়েশ্চারাইজার লাহতে ভুলবেন না। তার আগে কোনও একটা সেরাম লাগাতে পারলে আরও ভাল। গরমে ট্যানিংয়ের সমস্যার জন্যে আমরা বেশি ভাগ কোনও ক্লে মাস্ক বা চারকোল মাস্ক লাগাই। কিন্তু এতে ত্বকের আর্দ্রতা অনেকটা কমে যায়। তাই সপ্তাহে দু’দিন হাইড্রেটিং মাস্ক লাগানো প্রয়োজন। হলুদ, দুধ আর মধু দিয়ে বাড়িতেই এই ধরনে প্যাক বানিয়ে নিতে পারেন। তবে যাঁদের ত্বক তৈলাক্ত তাঁদের দুধে সমস্যা হতে পারে। তার বদলে শসা-অ্যালোভেরার প্যাক লাগালে উপকার পাবেন।

পর্যাপ্ত পরিমাণে সানস্ক্রিন লাগান
অনেকে ভাবেন একবার সানস্ক্রিন লাগিয়ে বাড়ি থেকে বেরলেই সারাদিন চলে যাবে। কিন্তু চড়া রোদে বেরলে দু’-তিন ঘণ্টা অন্তর সানস্ক্রিন লাগানো প্রয়োজন। সে ক্ষেত্রে একটা সানস্ক্রিন স্প্রে সঙ্গে রাখতে পারেন। এগুলোয় মেকআপ ঘেঁটে যাবে না। মনে রাখবেন মুখের জন্য এক চা-চামচ পরিমাণে সানস্ক্রিন প্রয়োজন। আর হাত-পা, গলা, পিঠের জন্যে একটা শট গ্লাসে যতটা পরিমাণ সানস্ক্রিন ধরবে, ততটা লাগানো উচিত।

রোদে পোড়া ত্বকের যত্ন নিন
খুব চড়া রোদে বেরলে অনেকের ত্বক পুড়ে লালচে র‌্যাশ বেরিয়ে যায়। তাঁদের দুপুর ১২টা থেকে ৩.৩০টে অবধি বাইরে যাওয়া এড়াতে হবে। নেহাতই বেরতে হলে সানস্ক্রিন, গগল্‌স আর স্কার্ফ বা ছাতা নেওয়া মাস্ট। বাড়ি ফিরে একটা পাতলা সুতির কাপড়ের কয়েক টুকরো বরফ নিয়ে পোড়া জায়গাগুলোর উপর আলতো করে বুলিয়ে নিন। তারপর মুছে অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে রাখুন। খুব সমস্যা হলে ডার্মাটোলজিস্টের কাছে অবশ্যই যাবেন।

 

৪/৪/২০১৭/২৩০/সা/ফা/