আর নেই বলিউড অভিনেত্রী রিমা লাগু…

ডেস্ক রিপোর্ট, বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

না ফেরার দেশে চলে গেলেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রিমা লাগু। বুধবার রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল মাত্র ৫৯ বছর। তার মৃত্যুতে মুম্বাইয়ের সিনেমা জগতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ছোট পর্দা হোক বা বড় পর্দা- সর্বত্রই ছিল তার অবাধ উপস্থিতি এবং দু’ ক্ষেত্রেই সমান জনপ্রিয় ছিলেন রিমা লাগু। একসময় একের পর এক বিগ ব্যানার ছবিতে গ্ল্যামারাস মায়ের চরিত্রে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেছেন তিনি।

প্রায় চার দশক আগে মারাঠী থিয়েটার থেকে তার অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেন রিমা। মারাঠা অভিনেতা বিবেক লাগুর সঙ্গে তার বিয়ে হয়। যদিও কয়েক বছর বাদে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

এর পর ১৯৮৫ সালে দুরদর্শনের ধারাবাহিক ‘খানদান’-এর মাধ্যমে ছোট পর্দায় কাজ শুরু করেন তিনি। এর আগে অবশ্য দু’একটি হিন্দি ছবিতে পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন রিমা। এর পর দুরদর্শনের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘শ্রীমান-শ্রীমতি’ এবং ‘তুতু ম্যায় ম্যায়’-এ তার অভিনয় মন জয় করে নেয় হাজার হাজার দর্শকের, নজর কাড়েন একাধিক প্রযোজক-পরিচালকদের।

তবে ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তক’ ছবিতে জুহি চাওলার মায়ের চরিত্রে অভিনয় করে তিনি প্রথম লাইম লাইটে আসেন। এরপর ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়া’ ছবিতে সলমন খানের মায়ের ভূমিকায় দেখা যায় তাকে। এছাড়া ‘কাল হো না হো’ তে শাহরুখ খানের মা এবং ‘হাম আপ কে হ্যায় কৌন’ ছবিতে মাধুরী দীক্ষিতের মায়ের চরিত্রে তার অভিনয় দর্শকদের আরও মুগ্ধ করে।

এরপর ‘সাজন’, ‘আশিকি’, ‘গুমরা’, ‘জয় কিষেন’, ‘ইয়ে দিল লাগি’ এবং ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’-এর মতো একাধিক সুপারহিট বলিউড ছবিতে তার অসাধারণ অভিনয় ভারতীয় দর্শকদের মনে গভীর ভাবে দাগ কাটে। বিগত তিন দশকে একশোরও বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন রীমা।

তবে বেশিরভাগ ছবিতেই মায়ের ভূমিকায় দেখা গেছে তাকে। সাতের দশকে নিরূপা রায় আর নয়ের দশকে রীমা লাগু, বলিউড ছবির সবচেয়ে সফল এবং জনপ্রিয় ‘মা’।

১৮/৫/২০১৭/০-৬০-১৮/অ/হা/