আমতলী সুপার মার্কেটের বিশাল অংশে ফাটল…

ডেস্ক রিপোর্ট ,বাংলারিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম

বরগুনার আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ সংলগ্ন

আমতলী সুপার মার্কেটের বিশাল অংশে ফাটল ধরেছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, ঠিকাদার নিম্নমানের কাজ করায় ভবনের একটি অংশ দেবে যাওয়াতে ফাটল দেখা দিয়েছে। যেকোনো মুহূর্তে ধসে পড়তে পারে বলে আতঙ্কে ভাড়াটিয়ারা।
জানা গেছে, বরগুনা জেলা পরিষদ ২০১৫ সালে ৪৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ১২ কক্ষ বিশিষ্ট আমতলী সুপার মার্কেট নির্মাণ কাজের দরপত্র আহবান করে। মেসার্স খোকন এন্টারপ্রাইজ নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ঐ কাজ পায়। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজ না করে আজাদ মিয়ার কাছে সাব লিজে কাজ দেয়। সাব লিজ নেয়া ঐ ঠিকাদার যথাসময়ে কাজ শুরু করেন। গত বছর ভবনের কাজ শেষ হয়। কাজ শেষে জেলা পরিষদ ঠিকাদার সমুদয় টাকা তুলে নিয়েছেন। পরে জেলা পরিষদের কাছ থেকে ভাড়াটিয়ারা কক্ষ বরাদ্দ নিয়ে তাদের ডেকোরেশন কাজ শুরু করেছে। নব নির্মিত ভবনের পূর্ব ও পশ্চিম পাশের দেয়ালে বড় ধরনের ফাটল দেখা দিয়েছে। এ ফাটলের ফলে ভাড়াটিয়ারা আতঙ্কে রয়েছে। তারা ডেকোরশনের কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। গতকাল সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নবনির্মিত ভবনের পূর্ব ও পশ্চিম অংশে বিশাল ফাটল ধরেছে। ঠিকাদার ফাটলের অংশে সিমেন্টের প্রলেপ দিয়ে লেপটে দিয়েছেন। ঐ ভবনের ভাড়াটিয়া আবু বকর মেডিকেল হলের মালিক অহিদুল ইসলাম বলেন মাটি দেবে গিয়ে ভবনে ফাটল ধরছে। তিনি আরও বলেন, এখনো বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়নি। সাব ঠিকাদার আজাদ মিয়া ভবন ডেবে যাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন একটি অংশে ফাটল দেখা দিয়েছিল, ঐ অংশ মেরামত করা হচ্ছে।
বরগুনা জেলা পরিষদ প্রকৌশলী মো. শহীদুল ইসলাম বলেন একটি ইট বোঝাই ট্রলি ওয়ালে ধাক্কা দেয়াতে ফাটল দেখা দিয়েছে। ঠিকাদারকে ঠিক করার জন্য বলেছি। তিনি আরও বলেন, ঐ ভবন দেবে যাওয়ার প্রশ্নই আসে না।
বরগুনা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন মুঠোফোনে বলেন, প্রকৌশলীকে পাঠিয়ে বিষয়টি দেখবো এবং কোন ধরনের অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

১১/৪/২০১৭/১৬০/অ/হা/